ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের ৭২ লাখ টাকার সম্পদ!

 

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ছিলেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) ডাটা এন্ট্রি অপারেটর। এই পদে থেকেই তিনি প্রায় ৭২ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন করেছেন।

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) তার অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিষয়ে সত্যতা পেয়ে মামলা দায়ের করেছে। রোববার দুদকের প্রধান কার্যালয় সহকারী পরিচালক নারগিস সুলতানা বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, মোহাম্মদ মহিউদ্দিন অসাধু উপায়ে তার ও তার স্ত্রী মাহবুব আরার নামে অর্জিত ১০ লাখ ৪২ হাজার ৭৩৬ টাকা মূল্যের অস্থাবর সম্পদের তথ্য দুদকে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে গোপন করে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন। তিনি নিজ নামে ও স্ত্রীর নামে অসাধু উপায়ে জ্ঞাত আয়ের উৎসের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ ৭১ লাখ ৭৪ হাজার ৯১৩ টাকা মূল্যের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের মালিক হয়েছেন।