নৌ শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার

 

মন্ত্রণালয়ের আশ্বাসে ছয় ঘণ্টা পর নৌযান শ্রমিক অধিকার সংরক্ষণ ঐক্য পরিষদের ডাকা অঘোষিত কর্মবিরতি প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ বুধবার (২৭ নভেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে ওই সংগঠনের ডাকা কর্মবরিতিতে ঢাকা নদীবন্দরসহ সারা দেশে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে নেওয়া হলে দুপুর ১২টায় সদরঘাট থেকে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন নৌপথে নৌযানগুলো চলাচল শুরু করে।

তবে যাত্রীদের উপস্থিতি ছিল কম। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দুপর ১২টার পর চারটি লঞ্চ চাঁদপুরের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। দক্ষিণাঞ্চল থেকে ভোর থেকে এখন পর্যন্ত ৫৫টি লঞ্চ এসেছে।

এব্যাপারে জানতে চাইলে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন বলেন, বরিশালের চরমোনাইয়ে মাহফিল ও নৌ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশ্বাসে যাত্রীবাহী নৌযানের ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। ১৫ দফা দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত মালবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে।

ঢাকা নদীবন্দরের নৌযান পরিদর্শক আবদুর রহমান বলেন, নৌযান শ্রমিকদের একাংশের নেতারা তাঁদের ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিলে নৌযান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

অভ্যন্তরীণ নৌচলাচল সংস্থার ঢাকা নদীবন্দরের আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘কর্মবিরতি বিষয়টি আমরা জানতাম না। কেন তারা প্রত্যাহার করেছে, এটা তাদের ব্যাপার। তবে তাদের যদি কোনো স্বার্থসিদ্ধির ব্যাপার থাকত, তাহলে আমাদের সঙ্গে আলাপ–আলোচনার মাধ্যমে তা সমাধা করা যেত। কিন্তু অহেতুক ছয় ঘণ্টার কর্মবিরতি ডেকে যাত্রীদের দুর্ভোগ ও হয়রানি করেছে। এটা ঠিক নয়।’