চতুর্থ শ্রেণির পরীক্ষা দিলেন ১০৫ বছর বয়সের ছাত্রী !

বয়স যে পড়াশোনার পথে কোন বাধা হয়ে দাড়ায় না, তা প্রমাণ করে দিলেন কেরালার ভাগীরথি আম্মা। ১০৫ বছর বয়সে দিলেন চতুর্থ শ্রেণির পরীক্ষা।কেরালা সরকারের পরিচালিত রাজ্য শিক্ষা মিশনের তিনি হলেন সব থেকে বয়স্ক শিক্ষার্থী। যিনি ইতিহাস গড়ে উত্তীর্ণ হলেন চতুর্থ শ্রেণির পরীক্ষা। তাঁর ৬ ছেলে ও ১৬ জন নাতি-নাতনি নিয়ে পরিবার।

কোল্লাম জেলা বাসিন্দা ভাগীরথি আম্মা জানান, মাত্র ৯ বছর, সেই সময় তৃতীয় শ্রেণিতে পড়তেন তিনি। তখন তাঁর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যায়। কারণ ওই সময় তিনি মা হন। আর সদ্যোজাত সন্তানের দেখাশোনা জন্যই পড়াশোনা বন্ধ করতে হয় তাঁকে। কিন্তু ইচ্ছেটা মরেনি। ইচ্ছে ডানায় ভর করেই শেষ পর্যন্ত কেরালা সরকারের শিক্ষা মিশনের বলে আম্মার হল স্বপ্ন পূরণ।

গত রবিবার থেকে শুরু হয়েছিল চতুর্থ শ্রেণির পরীক্ষা। শেষ মঙ্গলবার। তাতে সাফল্যের সঙ্গে পরীক্ষা দিয়েছেন ভাগীরথি আম্মা। কেরলের জেলা সাক্ষরতা অভিযানের জেলা কো-অর্ডিনেটর সিকে প্রদীপ কুমার ভাগীরথি আম্মার এই উদ্যোগ স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, এতে সাক্ষরতা অভিযানের গুরুত্ব আরও বাড়বে।