প্রেমিকের পরিবারের ওপর প্রেমিকার পরিবারের সশস্ত্র হামলা, ৩ জন গুলিবিদ্ধ

পাবনার সুজানগরে প্রেমের সম্পর্ককে কেন্দ্র করে প্রেমিকের পরিবারের ওপর প্রেমিকার পরিবার হামলা চালিয়েছে। এতে প্রেমিকের পরিবারের তিন সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

আজ শুক্রবার দুপুরে সুজানগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে পাবনার সুজানগরের হাটখালী ইউনিয়নের বারোভাগিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন প্রেমিক শওকত মোল্লার চাচা আজাহার মোল্লা, আজগর মোল্লা ও চাচাতো ভাই খায়রুল মোল্লা।

প্রেমিক-প্রেমিকার পরিবারের বরাত দিয়ে প্রত্যক্ষদর্শী প্রতিবেশীরা জানান, উপজেলার বারোভাগিয়া গ্রামের মোবারক মোল্লার ছেলে শওকত মোল্লা ও একই এলাকার বক্কার বিশ্বাসের মেয়ে তানিয়া খাতুনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। প্রেমিক শওকত স্থানীয় মালিফা সেলিম রেজা হাবিব ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের এবং প্রেমিকা তানিয়া খাতুন কামালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

শওকতের চাচাতো ভাই কামাল মোল্লা জানান, বেশ কিছুদিন ধরে দুই পরিবারের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। সেই বিরোধের জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে প্রেমিকার (তানিয়া) চাচাতো ভাই আনিছ বিশ্বাস ও ঝন্টু বিশ্বাস দলবল নিয়ে তাদের বাড়িতে সশস্ত্র হামলা চালায়। তাদের সঙ্গে থাকা লিয়ন, শাওনের নেতৃত্বে বেশ কিছু লোকজন আসে।

এ সময় বাধা দিতে গেলে হামলাকারীরা গুলিবর্ষণ করে। এতে তার চাচা আজাহার মোল্লা, আজগর মোল্লা ও চাচাতো ভাই খায়রুল মোল্লা গুলিবিদ্ধ হন। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আজগর মোল্লা ও খায়রুল মোল্লাকে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় আজাহার মোল্লাকে পাবনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সুজানগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, পারিবারিক কোলাহল থেকে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে শর্টগানের গুলিতে তিনজন আহত হয়েছেন। এলাকায় পুলিশি নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান ওসি।