ডিএসইতে লেনদেন ও সূচকের উত্থান অব্যাহত

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) রোববার চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে আগের দিনের ন্যায় সূচকের উত্থান দেখা গেছে। একইসঙ্গে আগের দিনের চেয়ে গতকাল লেনদেন ৩৪ কোটি টাকা বেড়েছে। অন্যদিকে দেশের অপর পুঁজিবাজার চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, রোববার ডিএসইতে লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত উত্থান-পতনের ধারা অব্যাহত ছিল এবং দিন শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ০৫ শতাংশ বেড়ে ৫ হাজার ২৪৭ দশমিক ১৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক শূন্য দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ০৫ শতাংশ বেড়ে ১ হাজার ১৪৬ দশমিক ৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ২ দশমিক ০২ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ বেড়ে ১ হাজার ৮৭৭ দশমিক ৫০ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৪৮৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৫২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে গতকাল ডিএসইর লেনদেন ৩৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা বেড়েছে। এদিন ১২ কোটি ৯৫ লাখ ২৫ হাজার ৪৪৭টি শেয়ার এক লাখ ৩৩ হাজার ৮৯৪ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৯৮ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১১টির, কমেছে ২৩২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৫টির দর।

রোববার টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে সি পার্ল বিচ রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা লিমিটেড। কোম্পানিটির ২০ কোটি ৮২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর পরের অবস্থানে থাকা লিন্ডে বাংলাদেশ লিমিটেডের ১৯ কোটি ৭৮ লাখ, ওরিয়ন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ১৯ কোটি ৭৬ লাখ, বীচ হ্যাচারি লিমিটেডের ১৪ কোটি ৪০ লাখ, ওরিয়ন ইনফিউশনস লিমিটেডের ১২ কোটি ৯৪ লাখ, এশিয়াটিক ল্যাবরেটরিজ লিমিটেডের ১২ কোটি ২৮ লাখ, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১১ কোটি ৯ লাখ, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিটেডের ১১ কোটি ৪ লাখ, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৯ কোটি ৩৭ লাখ এবং ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্ট লিমিটেডের ৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

রোববার ১০ শতাংশ শেয়ারদর বেড়ে টপটেন গেইনারের শীর্ষে উঠে আসে স্যালভো কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড। এর পরের অবস্থানে থাকা পেপার প্রসেসসিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ, বাংলাদেশ মনোস্পুল পেপার ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ, সোনালী আঁশ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৮ দশমিক ৭৪ শতাংশ, বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেডের ৮ দশমিক ৬৩ শতাংশ, ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশ, রেনাটা লিমিটেডের ৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ, সোনালী পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস লিমিটেডের ৬ দশমিক ৪০ শতাংশ, ওয়াটা কেমিক্যালস লিমিটেডের ৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ এবং আফতাব অটোমোবাইলস লিমিটেডের ৫ দশমিক ৩৬ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে সিএসইতে রোববার সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ২২ দশমিক ৩৭ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ২৫ শতাংশ বেড়ে ৮ হাজার ৯২১ দশমিক ৯৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩৪ দশমিক ৮৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ২৩ শতাংশ বেড়ে ১৪ হাজার ৮২১ দশমিক ৭১ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২০৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৫টির, কমেছে ৯৫টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৩টির দর। সিএসইতে রোববার মোট ১০ কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর আগের কার্যদিবসে হয়েছিল ১২১ কোটি ৬৩ লাখ টাকার। অর্থাৎ আগের কার্যদিবসের চেয়ে গতকাল সিএসইতে ১১০ কোটি ৬৫ লাখ টাকার লেনদেন কমেছে।