চলে গেলেন বর্ষীয়ান আইনজীবী বাসেত মজুমদার

প্রবীণ আইনজীবী আবদুল বাসেত মজুমদার (৮৪) আর নেই (ইন্না … রাজিউন)। বুধবার সকাল ৮টার দিকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

গরিবের আইনজীবী হিসেবে পরিচিত আবদুল বাসেত মজুমদার বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি আমৃত্যু আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ছিলেন।

এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর আবদুল বাসেত মজুমদারকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সোমবার তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

সোমবার এ তথ্য জানিয়ে বাসেত মজুমদারের ছেলে অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা বলেছিলেন— রোববার বাবাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। এর মধ্যে হার্টঅ্যাটাক করায় ভেন্টিলেশনে নেওয়া হয়েছে।

এর আগে হাসপাতালে ভর্তি করানোর পর গত ৬ অক্টোবর সাঈদ আহমেদ রাজা জানিয়েছিলেন, সর্বশেষ উনার পেছনের মেরুদণ্ডের হাড়ের একটি ডিস্ক ডিসপ্লেসমেন্ট হয়ে যায়। প্রায় দুই-আড়াই মাস থেকে উনি খুবই অসুস্থ। তার পর সর্বশেষ ১০-১২ দিন ধরে উনার খাওয়া-দাওয়া বন্ধ ছিল। প্রায় দুই-আড়াই মাস ধরে অসুস্থ বর্ষীয়ান এই আইনজীবী।

আবদুল বাসেত মজুমদার আইন পেশায় ৫৬ বছর পার করেছেন। ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি-সম্পাদক। তিনি ১৯৩৮ সালের ১ জানুয়ারি কুমিল্লার লাকসাম (বর্তমানে লালমাই) উপজেলার শানিচো গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।