চলতি মাস থেকে সিলিন্ডার গ্যাসে খরচ বাড়ল ৫ শতাংশ

দুই মাস মূল্যহ্রাসের পর আবারো বেড়েছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) দাম। চলতি মাসের জন্য প্রতি কেজি এলপি গ্যাসের দাম আগের মাসের চেয়ে ৫ টাকা ১৭ পয়সা বাড়িয়ে ১০৩ টাকা ৩৪ পয়সা নির্ধারণ করেছে সরকার। সে হিসেবে ১২ কেজি এলপি গ্যাসের দাম ১ হাজার ২৪০ টাকা পুনর্নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। কমিশন চেয়ারম্যান মো. আব্দুল জলিল মূল্যহার পুনর্নির্ধারণের এ আদেশ দেন।

সৌদি সিপির সঙ্গে সমন্বয় করে প্রতি মাসের প্রথম সপ্তাহে এ মূল্য নির্ধারণ করছে কমিশন। চলতি মাসের এ দাম গতকাল থেকে কার্যকর হয়েছে। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী, রান্নার কাজে সবচেয়ে বেশি ব্যবহূত ১২ কেজি ওজনের একটি এলপিজি সিলিন্ডারের দাম ঠিক করা হয়েছে মূসকসহ ১ হাজার ২৪০ টাকা, যা জানুয়ারিতে ১ হাজার ১৭৮ টাকা ছিল। অর্থাৎ, এ মাসে ৫ শতাংশ বা ৬২ টাকা বাড়তি দাম গুনতে হবে এলপিজি সিলিন্ডার ব্যবহারকারীদের।

নতুন মাসে এলপিজির মূল উপাদান প্রোপেন ও বিউটনের আন্তর্জাতিক মূল্য বা সিপি প্রতি টন ৭৭৫ ডলার ঠিক করা হয়েছে। সেই হিসেবে এ দুই গ্যাসীয় দ্রব্যের ৩৫: ৬৫ মিশ্রণের মূল্যও দাঁড়ায় প্রতি টন ৭৭৫ ডলার।

জানুয়ারিতে এ মিশ্রণের মূল্য ছিল ৭২০ দশমিক ৫০ ডলার। সেই পার্থক্য বিবেচনায় নিয়ে ঠিক করা হয়েছে নতুন মাসের মূল্যহার। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী রেটিকুলেটেড এলপিজির দাম ঠিক হয়েছে ১০০ টাকা ১০ পয়সা, যা জানুয়ারিতে ৯৪ টাকা ৯৪ পয়সা ছিল। যানবাহনে ব্যবহূত অটোগ্যাসের দাম ধরা হয়েছে মূসকসহ ৫৭ টাকা ৮১ পয়সা, আগের মাসে ছিল ৫৪ টাকা ৯৪ পয়সা।

টানা পাঁচ মাস মূল্যবৃদ্ধির পর গত ডিসেম্বরে এলপিজির দাম কমা শুরু করে। জানুয়ারিতে দ্বিতীয় মাসের মতো দাম ৪ শতাংশ কমলেও ফেব্রুয়ারিতে এসে বেড়ে গেল ৫ শতাংশ। নতুন মূল্যহার অনুযায়ী, এলপিজির সাড়ে ৫ কেজির সিলিন্ডারের দাম ৫৬৮ টাকা, ১২ কেজি সিলিন্ডার ১ হাজার ২৪০, সাড়ে ১২ কেজি ১ হাজার ২৯২, ১৫ কেজি ১ হাজার ৫৫০, ১৬ কেজি ১ হাজার ৬৫৩, ১৮ কেজি ১ হাজার ৮৬০, ২০ কেজি ২ হাজার ৬৭, ২২ কেজি ২ হাজার ২৭৩, ২৫ কেজি ২ হাজার ৫৮২, ৩০ কেজি ৩ হাজার ১০০, ৩৩ কেজি ৩ হাজার ৪১০, ৩৫ কেজি ৩ হাজার ৬১৭ ও ৪৫ কেজির বোতল ৪ হাজার ৬৫০ টাকা ঠিক করা হয়েছে।