ইউনাইটেড ফাইন্যান্স ও এমএল ডায়িংয়ের ঋণমান প্রকাশ

ঋণমান অবস্থান (ক্রেডিট রেটিং) নির্ণয় করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি এমএল ডায়িং লিমিটেড এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের কোম্পানি ইউনাইটেড ফাইন্যান্স লিমিটেড। আর তাদের প্রাপ্ত রেটিং স্টেকহোল্ডারদের জন্য প্রকাশ করেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এমএল ডায়িং: কোম্পানিটি দীর্ঘ মেয়াদে রেটিং পেয়েছে ‘এ মাইনাস’ ও স্বল্প মেয়াদে পেয়েছে ‘এসটি-২’। ৩০ জুন ২০২০ থেকে ২০২৩ পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ৩১ মার্চ ২০২৪ পর্যন্ত অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্যের আলোকে এ রেটিং সম্পন্ন হয়েছে। আর এই রেটিং দিয়েছে ইমার্জিং ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড (ইসিআরএল)। কোম্পানিটি ২০১৮ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘বি’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ৩১০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ২৩২ কোটি ৪৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৭৭ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। কোম্পানিটির ২৩ কোটি ২৪ লাখ ৩৪ হাজার ৯০ শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৩০ দশমিক ৫৭ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৭ দশমিক ২৪ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৫২ দশমিক ১৯ শতাংশ শেয়ার।

ইউনাইটেড ফাইন্যান্স: কোম্পানিটি দীর্ঘ মেয়াদে রেটিং পেয়েছে ‘এএ মাইনাস’ ও স্বল্প মেয়াদে পেয়েছে ‘এসটি-২’। ৩১ ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্যের আলোকে এ রেটিং সম্পন্ন হয়েছে। আর এই রেটিং দিয়েছে ইমার্জিং ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড (ইসিআরএল)। আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের এ কোম্পানিটি ১৯৯৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘বি’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ৩০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৮৭ কোটি ১১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ১৩১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট ১৮ কোটি ৭১ লাখ ১৪ হাজার ৬১৪টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের ৫৪ দশমিক ৪২ শতাংশ উদ্যোক্তা বা পরিচালকদের কাছে প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ২৮ দশমিক ৮০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ২০২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা দিয়েছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭৬ পয়সা এবং ৩১ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখে শেয়ারপ্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ৩২ পয়সা। আর আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ৭৬ পয়সা। এর আগে কোম্পানিটি ৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭৬ পয়সা এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ৬ পয়সা। এই হিসাববছরে শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ১২ টাকা ৪৭ পয়সা (ঘাটতি)।

এন এস